সংবাদ শিরোনাম

আরও সংবাদ

5 Comments

  1. 1

    কালাম মীর

    ধন্যবাদ, জনাব আরিফুল হক, আপনার উদ্দীপনাময় লেখনীর জন্য! আমার সাধারণের লেখা একটি প্রবন্ধের শেষ কয়টি লাইন শেয়ার করছি আপনার অসামান্য লেখার সমর্থনে:

    পাকিস্তানিদের হাত ধরে আমরা স্বাধীনতার বীজ বপন করে ছিলাম ১৯৪৭-এ। বাইশ বছর শেষে কল্পনাতীত এক ভয়াল ২৫শে মার্চের পরে এবার ভারতীয়দের হাত ধরে সেই বিষবৃক্ষ আমরা উপড়ে ফেলেছি। মুছে দিয়েছি আমাদের বিজাতীয় সংগীত ‘পাকসার জমিন’। বন্ধু, সাবধান! আরেক অকল্পনীয় ‘২৫শে মার্চ’ আসবে। এই রাত্রি হবে আরো ভয়াল কালো। এর আলামত স্পষ্ট। কিন্তু, এবারের হানাদার হাজার মাইল দূরের নয়। এরা আপন ঘরের, ভিতরের, বাহিরের, এবং নিকট প্রতিবেশী। এই যুদ্ধ হবে আরো মর্মন্তুদ ও প্রলম্বিত। আর, এই যুদ্ধে আমাদের কতটুকু ক্ষতি হবে তা নির্ভর করবে আমাদের সজ্ঞান মানসিক এবং বাস্তবিক প্রস্তুতির উপর! আর ভবিষ্যতের মঞ্চে দাঁড়িয়ে আমরা আমাদের অতীত নিষ্ক্রিয়তার জন্য অনুতপ্ত হব। – তখন থাকবে হয়তো শুধুই অনুতাপ, যেমনটি আছে একাত্তরের মুক্তি-যুদ্ধের !!

    Reply
  2. 2

    Berry

    রক্ত গরম হয় কিন্তু মন গরম হয় না।তাই আমি ভিতু। আপনার অসাংধারণ লেখা।

    Reply
  3. 3

    Md

    সময় এসেছে ভারত এবং তাদের এদেশীয় দালালদের লাথি মেরে বঙ্গপোসাগরে ফেলার।

    Reply
  4. 4

    Omar Faruque

    আরিফুল হক স্যারের লেখা গুলো পড়ে অনেক কিছু জানতে পারলাম। সত্যি আজ খুবই কষ্ট হচ্ছে মেনে নিতে স্বাধীনতার এত বছর পরেও বাংলার মানুষ স্বাধীনতা বুক করতে পারছে না। আমরা পারছিনা। মুক্তিযুদ্ধে শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশ আজ হায়নার দল কুড়ে কুড়ে খাচ্ছে দেশটাকে। পুরো দেশটাকে জিম্মি করে এক দলীয় শাসন কায়েম করে রেখেছে। ভিন্ন মতের মানুষ কোন বিচার পাচ্ছে না। ঘুম, খুন, ধর্ষণ লাগামহীন ভাবে চলছে। ইনশাআল্লাহ একদিন পতন তোমার নিশ্চয়ই হবে

    Reply
  5. 5

    আবু সায়েম।

    মিনার রশিদ এবং আরিফুল হক সাহেবের লেখা খুবই সময়োপযোগী এবং অসাধার। দেশের প্রতিবাদী মানুষদের জেগে উঠার এখই প্রকৃত সময়।
    —- দুবাই থেকে।

    Reply

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

© স্বত্ব আমার দেশ ২০০৮ – ২০২০