আরও সংবাদ

One Comment

  1. 1

    The Patriot

    Today’s Freedom fighters of the Motherland:-
    কোনো অবস্থাতেই তোমাদের একা চলাফেরা করা উচিৎ নয়! সব সময় দলবদ্ধ হয়ে থাকতে হবে। হারামজাদাগুলো কিছু করতে চাইলে সবাই মিলে সেখানেই ওদের প্রতিহত করতে হবে। বাবারা, দূরে বসে তোমাদের জন্য প্রাণথেকে দোওয়া করছি। এখন আর সময় নেই!! সারা দেশে একসাথে রাস্তায় নামতে হবে, এবং উদ্দেশ্য হাসিল না-হওয়া পর্যন্ত রাস্তা ছাড়া যাবেনা। সরকার পতনের এই একটাই উদ্দেশ্যে, সমমানসিকতা সম্পন্ন সকল দলের সাথে একত্রিত হয়ে রাস্তায় নেমে SIT-IN করতে হবে। যেভাবেই হোক পুলিশকে দেশজুড়ে নিষ্ক্রিয় করতে হবে – এরাই সকল গুন্ডামীর হোতা এবং প্রশ্রয় দাতা। পুলিশ পিছনে না থাকলে কোনো লীগ-বাহিনীরই কিছু করার ক্ষমতা নেই! অন্যায় যে করে এবং সহ্য করে দুজনেই সমান দোষী – পুলিশের মধ্যে এমুহূর্তে ভালো কেউ নেই, কারণ ওরা একে অপরকে সরাসরি অথবা গোপনে সাহায্য করছে। পুলিশের কোনো সদস্যই ঘটমান অন্যায় অবিচারের দায় এড়াতে পারেনা। ওরা ইচ্ছা করলেই এই অবৈধ সরকারকে একমুহূর্তেই থামিয়ে দিতে পারে। চাকরির ভয় করার কোনো কারণ ওদের থাকতে পারেনা! মানুষের সেন্টিমেন্ট ওরা ঠিকই জানে এবং বোঝে! এই সরকার পতনের পর যে জাতীয় সরকার আসবে ওরা সকল দেশপ্রেমিক পুলিশকে অবশ্যই পুনর্বহাল করবে!! তাহলে ওদের ভয়ের কারণ কি?? একটাই কারণ এই হারামজাদা পুলিশের – তা হলো অস্বাভাবিক রকম আর্থিক সুবিধা যা হাসিনা ওদের দিয়ে রেখেছে সেটা ওরা ছাড়তে চাইছে না!! সব, সব পুলিশই হারামজাদা – এদের সমূলে পরিবর্তন এবং প্রতিস্থাপন করতে হবে জাতীয় সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে। অতএব বর্তমানের এই নষ্ট পুলিশকে নিষ্ক্রিয় নাকরা পর্যন্ত মনে হয়না তোমরা কিছু করতে পারবে। ব্যাপারটা মাথায় রেখে কিভাবে কি করা যায় তা প্রবীণ, অভিজ্ঞ রাজনীতিবিদদের সাথে আলোচনা করে সেই অনুযায়ী প্ল্যান করে আগাতে হবে। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন তোমাদের সহায় হোন, রক্ষা করুন, এবং উদ্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাবার তৌফিক দান করুন – আমিন।

    Reply

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

© স্বত্ব আমার দেশ ২০০৮ – ২০২০